খবরের বিস্তারিত...

ইসলামিক ফ্রন্ট

রোহিঙ্গাদের মাঝে আল্লামা জুবাইরের নেতৃত্বে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ’র ত্রাণ বিতরণ

সেপ্টে. 19, 2017 সাংগঠনিক খবর

কক্সবাজার উখিয়াতে বাস্তুহারা রোহিঙ্গা  শরণার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে প্রগতিশীল ইসলামী সংগঠন ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ। সংগঠনের চট্টগ্রাম জেলা শাখার উদ্যোগে ১৮ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টায় টেকনাফস্থ কুতুপালং ও থাইংখালী এলাকার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। আল্লামা জুবাইর এর নেতৃত্বে ইসলামিক ফ্রন্টের  রিলিফ টিমের সদস্যবৃন্দ উক্ত এলাকার বিভিন্ন ক্যাম্প পরিদর্শন করেন এবং রোহিঙ্গা মুসলমানদের খোঁজ খবর নেন।  রিলিফ টিম ২০০০ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে লুঙ্গি, শাড়ি, ঔষধ, লবণ, চিনি, মশারি, বালতি, ডেক্সী,জগ ইত্যাদি সহ নগদ টাকা ত্রাণ প্রদান করেন।

এই সময় ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় মহাসচিব অধ্যক্ষ আল্লামা জয়নুল আবেদীন জুবাইর বলেছেন, ‘মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমানরা বিচ্ছিন্ন কোন দ্বীপের বাসিন্দা নয়। এরা মিয়ানমারের নাগরিক। এদের বাস্তুচ্যুত করা কিংবা এদের হত্যা করা মানবাধিকার লঙ্ঘনেরই নামান্তর। মিয়ানমার থেকে প্রাণে বাঁঁচতে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলমানদের অবিলম্বে মিয়ানমারে ফেরৎ নিয়ে গিয়ে তাদের নাগরিকত্ব প্রদানের দাবী জানান। টেকনাফ, বান্দরবান সহ কক্সবাজার অঞ্চলে লক্ষ লক্ষ রোহিঙ্গা মুসলমান মানবেতর জীবন যাপন করছে। খাদ্য ও চিকিৎসার অভাবে অনেকেই মৃত্যুর প্রহর গুণছে। সামান্য ত্রাণের আশায় তীর্থের কাকের ন্যায় অপেক্ষা করছে হাজার হাজার নিরীহ রোহিঙ্গা মুসলমান। যাদের অবয়বে প্রতিবিম্বিত হচ্ছে আতংক ও ভীতি। সরকারি-বেসরকারিভাবে যেসব ত্রাণ সামগ্রী আসছে তা প্রয়োজনের তুলনায় অপেক্ষাকৃত অপ্রতুল। অতএব, এদের বাঁচাতে তিনি দেশের বিত্তবান শ্রেণিসহ দলমত নির্বিশেষে সকলকে এগিয়ে আসার উদাত্ত আহবান জানান। এছাড়াও তাদের কোনো রকম মাথা গুজার ঠাঁই যাতে হয়, তজ্জন্য সরকার ও জাতিসংঘকে ইতিবাচক পদক্ষেপে এগিয়ে আসতে হবে।
রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন ক্যাম্প সরেজমিন পরিদর্শনে বিবিধ রোগ বালাইয়ের শিকারে পরিণত হয়ে শিশুরাই নিতান্ত ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে বলে মন্তব্য করে তিনি আরও বলেন, এ সমস্যার স্থায়ী সমাধানে মিয়ানমার সরকারের উপর বিশ্ব সম্প্রদায়ের কুটনৈতিক তৎপরতা জোরদার করার উপর গুরুত্বারোপ করেন। রোহিঙ্গা সমস্যা জাতীয় সমস্যা এটি মোকাবেলায় জাতীয় ঐক্যের কোন বিকল্প নেই। তিনি ইতোমধ্যে বাংলাদেশে আশ্রিত এসব রোহিঙ্গাদের অবিলম্বে ফিরিয়ে নিয়ে এদের পুড়িয়ে দেয়া বাড়ী-ঘর পূণ:নির্মান ,নষ্ট করে দেয়া ফসলাদি পূন: চাষাবাদে রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে অর্থ সহযোগিতা প্রদান সর্বোপরি এদের জন্য ‘নিরাপত্তা অঞ্চল’ প্রতিষ্ঠা সহ এদের সর্বপ্রকার নাগরিক ও মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করনে মিয়ানমার সরকারের প্রতি জোর দাবী জানান’।
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইসলামিক ফ্রন্ট চট্টগ্রাম মহানগর সহ সভাপতি অধ্যক্ষ এম ইব্রাহীম আখতারী, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ইসলামিক ফ্রন্টের সহ সভাপতি মাওলানা সৈয়দ রফিকুল ইসলাম তাহেরী, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ইসলামিক ফ্রন্ট এর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক স.ম শহীদুল হক ফারুকী, আলহাজ্ব এ এম মঈন উদ্দিন চৌধুরী হালিম, আলহাজ্ব মোহাম্মদ আক্কাস উদ্দিন খোন্দকার, ডা: হাসমত আলী তাহেরী, শহীদুল্লাহ সাদাত, খ.ম জামাল উদ্দিন, নুরুল আবছার কফিল, মোহাম্মদ ফরহাদ হোসেন, মাওলানা হাফেজ নাসির, ইসলামিক ফ্রন্ট কক্সবাজার জেলা আহ্বায়ক মাওলানা সুলতান উদ্দিন আলকাদেরী, জেলা যুগ্ম আহ্বায়ক ফরিদুল আলম জালালী, সদস্য সচিব মুফিজ উদ্দিন, কাজী জয়নাল আবেদীন, হাফেজ বেলাল উদ্দীন, মাওলানা খাইরুল আমিন, মাওলানা নুরুল্লাহ, মাওলানা অলি আহমদ, ইসলামী ছাত্রসেনা কক্সবাজার জেলা নেতৃবৃন্দ যথাক্রমে- এম. মনির উদ্দিন, ওসমান, আলমগীর, রিফাত, সাইফুল ইসলাম, সিহাব উদ্দিন, দেলোয়ার বাহার প্রমুখ।

Comments

comments

Related Post